নিউজ

Traffic Rules: মাথায় হেলমেট থাকেলও অনেক টাকা জরিমানা করতে পারে পুলিশ, কীভাবে বাঁচবেন? দেখে নিন আইন-কানুন

বর্তমানে ট্রাফিক আইন অত্যন্ত কঠোর হয়ে উঠছে সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে। তার কারণ হেলমেট না পড়ে গাড়ি চালিয়ে বা ভুলভাল নিয়মে দ্রুত গতিবেগে ব্যস্ত রাস্তায় গাড়ি চালিয়ে বাড়ছিল দুর্ঘটনা। এই দুর্ঘটনার সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করতে এখন যথেষ্ট কড়া হয়েছে ট্রাফিক পুলিশ। রাস্তায় রাস্তায় বসানো রয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা, যাতে ধরা পড়ছে নিয়ম লঙ্ঘনের বিভিন্ন দৃশ্য। কোনরকম নিয়ম না মানলেই হাতে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে একটি মোটা অংকের জরিমানা। তবে আপনি কি জানেন হেলমেট পড়লেও এখন ১০০০ টাকা জরিমানা দিতে হচ্ছে?

অনেকেই হেলমেট পড়ে গাড়ি চালাচ্ছেন ঠিকই, এর পরেও তার হাতে ট্রাফিক পুলিশ ধরিয়ে দিচ্ছেন ১০০০ টাকার জরিমানার স্লিপ। কিন্তু কেন? মোটর ভেহিকেল অ্যাক্ট ১৯৮৮-তে পরিষ্কারভাবে বলা রয়েছে যে, যদি কোন বাইক বা স্কুটি আরোহী ঠিকভাবে হেলমেট ব্যবহার না করেন অর্থাৎ ঠিক ভাবে হেলমেটটি মাথায় না পড়েন, তবে তাকে রাস্তায় থামিয়ে ট্রাফিক পুলিশ উপযুক্ত শাস্তি দিতে পারবেন। এছাড়া জরিমানা তো বাধ্যতামূলক।

অনেক মানুষই আছেন যারা শুধুমাত্র ট্রাফিক পুলিশদের চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য পড়ছেন হেলমেট। না ঠিকঠাক ভাবে হেলমেটটা পড়া হচ্ছে না ভালো মানের হেলমেট তারা ব্যবহার করছেন। এর ফলে ট্রাফিক পুলিশ বাধ্য হচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা দিতে। ভুল হেলমেট পড়ার কারণেও রাস্তায় অতি সহজে দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে হয় চালকদের। তাই এই দুর্ঘটনাকে আটকাতেই তৎপর হয়েছেন ট্রাফিক পুলিশ।

ভুল নিয়মে হেলমেট পড়লে বা ISI মার্ক ছাড়া হেলমেট পড়লে দিতে হবে ১০০০ টাকা জরিমানা। অপরদিকে হেলমেট না থাকলে ২০০০ টাকা জরিমানা ধার্য করা হয়েছে। বাজারে যে সমস্ত হেলমেট পাওয়া যায় সেগুলি সবই যে চালকের জন্য উপযুক্ত, তেমন নয়। বিশেষজ্ঞরা সর্বদাই সাদা এবং হলুদ রঙের হেলমেট করতে বলেন। তাদের মতে, সর্বদা কার্বন ও কেবলার মিশ্রিত হেলমেটে ব্যবহার করা মাথার জন্য সুরক্ষিত। যেহেতু ISI হেলমেট গুলো বিভিন্ন ধরনের প্রটোকল মেনে তৈরি করা হয়, তাই এই ISI মার্কের হেলমেটই পড়ার কথা পরামর্শ দেন বিশেজ্ঞরা।